আমতলীতে সন্ত্রাসী হামলায় মহিলাসহ আহত-৪

আমতলীতে সন্ত্রাসী হামলায় মহিলাসহ আহত-৪



আমতলী প্রতিনিধি : বরগুনার আমতলী উপজেলার দক্ষিন রাওঘা গ্রামের মতি মোল্ল¬ার বাড়ীতে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে ঘর ভাংচুর ও নগদ টাকা লুট করে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনা ঘটেছে সোমবার বিকেলে। স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার দক্ষিন রাওঘা গ্রামে সোমবার বিকেলে মতি মোল্লার তরমুজ ক্ষেতের উপর দিয়ে জয়নাল গাজীর ক্ষেতের বিক্রিত তরমুজ ট্রলিতে করে নিতে যায়। এতে মতি মোল্ল¬া বাঁধা দেয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তরমুজ ক্রেতা জামাল মৃধার নেতৃত্বে শতাধিক লোকজন লাঠি সোটা নিয়ে মতি মোল্ল¬া (৪৫), তার স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৩৫) ও বোন মোর্শ্বেদা বেগম (৫০) এবং প্রতিবেশী আম্বিয়া বেগমকে (৬৫) বেধরক পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে লাঠিয়াল বাহিনী মতি মোল্লার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে বাড়ী ঘর ভাংচুর করেছে। এ সময় তার ঘরে রক্ষিত তরমুজ বিক্রির নগদ ৮৫ হাজার টাকা সন্ত্রাসীরা নিয়ে গেছে বলে মতি মোল্ল¬া অভিযোগ করেছেন। আহতদের ওই রাতেই আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় মসজিদের ঈমাম মাওলানা মোহম্মদ হাফেজুর রহমান জানান জামাল মৃধার নেতৃত্বে শতাধিক সন্ত্রাসীরা মতি মোল্লার বাড়ী ঘরে হামলা চালিয়ে মহিলাসহ পরিবারের লোকজনকে বেধরক মারধর করেছে। নিজাম আকন জানান মতি মোল্লার তরমুজ ক্ষেতের উপর দিয়ে জামাল মৃধা জোড়পুর্বক ট্রলিতে করে তরমুজ নেয়ার সময় এ ঘটনা ঘটেছে। আহত মতি মোল্লা জানান জামালের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা আমার বাড়ীতে হামলা করে আমাকে, আমার স্ত্রী ও বোনকে মারধর করেছে। পরে তারা ঘর পিটিয়ে ভাংচুর করে ঘরে থাকা তরমুজ বিক্রির ৮৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। অভিযুক্ত জামাল মৃধার মুঠো ফোনে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা পুলক চন্দ্র রায় জানান এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।