বামনায় নির্বাচনী প্রচারনায় হামলা, আটক এক

বামনায় নির্বাচনী প্রচারনায় হামলা, আটক এক


স্টাফ রিপোর্টার : বরগুনার বামনা উপজেলার বামনা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার বিকেল বামনা ইউনিয়নে ধানের শীষ প্রতীকের প্রচার প্রচারনায় বাধা দেয়া, বিএনপির কর্মীদের মারধর ও উপজেলা বিএনপির অফিস ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অফিস ভাংচুরের ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ।
বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মো. এনায়েত কবির অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার বিকালে চারাখালী গ্রামে প্রচার প্রচারনা চালানোর সময় আমার সামনে থেকে দুই কর্মীকে ধরে নিয়ে মারধর করে আওয়ামীলীগ সর্মথীত প্রার্থীর ভাড়াটে সন্ত্রসী আজমল মীর, ফিরোজ পহলান ও জনির নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসীরা। একই সাথে আমাকে প্রচার প্রচারনা চালাতে ও জনগনের কাছে ভোট চাইতে না করেন। প্রচার প্রচারনা চালালে আমার কর্মী সমর্থক ও আমার উপরে হামলা করা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্থানীয় ভাড়াটে সন্ত্রসী মুকুলের নেতৃত্বে উপজেলা বিএনপি অফিসে ভাংচুর চালানো হয়। এই ঘটনায়  শান্তি পূর্ন পরিবেশে ভোট গ্রহন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন ।
এবিষয়ে আওয়ামীলীগ সমর্থীত প্রাথী চৌধুরী কামরুজ্জামান সগির অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,  আমার কোন কর্মী কারো উপরে হামলা করেনি। বিএনপির প্রার্থী তাদের নিজেদের কোন্দলে সৃষ্ট হামলা নির্বাচনী ইস্যু হিসেবে ব্যবহার করতে চায়। বিএনপি প্রার্থী পুলিশের উপর হামলা করার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে। এখানে শান্তিপূর্ণ ভাবে নিবার্চনী প্রচার প্রচারনা চলছে বলেও তিনি জানান।      
এবিষয়ে রির্টানিং কর্মকর্তা জি এম রেজাউল করিম বলেন, আমি অভিযোগ পেয়েছি। বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উদ্দ্যেগ গ্রহন করা হয়েছে।
বামনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  মো. আজিজুর রহমান বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অফিস ভাংচুরের মুল হোতা মিজানুর রহমান মুকুলকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে।